Mid Day Meal : ডিম,রকমারি সব্জির পর এবার পাতে পড়বে মুরগির মাংস,মরসুমি ফল।

মিড ডে মিলে বরাদ্দ বাড়ালো রাজ্য সরকার। এবার থেকে পড়ুয়াদের দেওয়া হবে ডাল,ভাত,খিচুড়ির পরিবর্তে মুরগির মাংস ও মরসুমি ফল। এই মর্মে বৃহস্পতিবার স্কুল শিক্ষক দপ্তর জেলা শাসকদের নির্দেশিকা পাঠিয়েছে। পড়ুয়াদের মধ্যে মিড ডে মিলকে (Mid Day Meal) আরো আকর্ষণীয় ও পুষ্টিকর করতেই সরকারের এই উদ্যোগ। ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকার মিড ডে মিলে মুরগির মাংস ও ফল দেওয়ার খাতে ৩৭২ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। রাজ্যে বর্তমানে প্রথম থেকে অষ্টম শ্রেণী পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি পড়ুয়াকে মিড ডে মিলের খাবার দেয়া হয়।

মিড ডে মিল নিয়ে অভিযোগ বহুদিনের। মিড ডে মিলে নিম্নমানের খাবার দেওয়া,কম পড়ুয়াকে খাইয়ে বেশি পড়ুয়ার খাওয়ানোর হিসাব দেওয়া,মিড ডে মিলের চাল চুরি ইত্যাদি অভিযোগ প্রায়শই শোনা যায়। কিছুদিন আগে এইসব অভিযোগ মাথায় রেখে দুর্নীতি কমিয়ে মিড ডে মিল প্রকল্প সঠিকভাবে পরিচালনার জন্য কেন্দ্রীয় মনিটরিং কমিটি গঠন করে শিক্ষা দপ্তর। রাজ্যের মিড ডে মিলের ৬০ শতাংশ টাকা দেয় কেন্দ্র সরকার ও বাকি ৪০ শতাংশ খরচ রাজ্য সরকার বহন করে। মিড ডে মিল প্রকল্পের বর্তমান নাম রাখা আছে পি এম পোষণ যোজনা,সারাদেশের প্রায় ১২ কোটি ছাত্রছাত্রী এই যোজনার মাধ্যমে নিয়মিত মিড ডে মিল পেয়ে থাকে।

(আরও পড়ুন : PM Awas Yojana : শুরু হল অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানোর প্রক্রিয়া,সময়সীমা বেঁধে দিল নবান্ন।

কিছুদিন আগে স্কুল শিক্ষক দপ্তরের আরেকটি নির্দেশিকাই জানানো হয় শীতকালে আনাজ,শাকসব্জির দাম কমে যাওয়ায় মার্চ মাস পযন্ত পড়ুয়াদের সপ্তাহে তিন দিন (সোম,বুধ,শুক্র) ডিম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়,এছাড়াও প্রতিদিন ভিন্ন ভিন্ন আনাজ দিয়ে তৈরি রকমারি সব্জির তরকারি পড়ুয়াদের পাতে পড়বে বলেও জানানো হয়। তখনই ডিম বাবদ পড়ুয়া পিছু অতিরিক্ত ৭ টাকা বাড়ানো হয়েছিল,বর্তমানে সরকারের তরফ থেকে প্রতি সপ্তাহে পড়ুয়া পিছু ২০ টাকা করে বরাদ্দ বাড়ানো হয়েছে। আগেই ডিম ও রকমারি সব্জির তরকারি,বর্তমানে তার সঙ্গে মুরগির মাংস ও মরসুমি ফল যুক্ত হওয়ায় মিড ডে মিলের মান ও পুষ্টি অনেকাংশে বেড়ে যাবে,বাড়বে স্কুলে স্কুলে উপস্থিতির হার।

তবে শিক্ষা দপ্তরের ওই নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে (২৩ জানুয়ারি,২০২৩-২৩ এপ্রিল,২০২৩) কেবলমাত্র চার মাসের জন্য মুরগির মাংস ও ফল দেওয়া হবে পড়ুয়াদের।

রাজ্যের বিরোধী দলের নেতারা সরকারের উদ্যোগকে ইতিমধ্যে কটাক্ষ করেছেন। তাদের দাবি সামনে পঞ্চায়েত নির্বাচন,সেই নির্বাচনকে সামনে রেখে মানুষের মন ভোলাতে সরকারের এই উদ্যোগ। সরকার যদি পুরো শিক্ষাবর্ষ (ডিসেম্বর)অবধি মিড ডে মিলে মাংস দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু রাখত তবেই এই উদ্যোগকে সত্যি সত্যি স্কুল পড়ুয়াদের কথা ভেবে বলে ধরা হত।

শেয়ার করুন

Leave a Comment