ঐক্যশ্রী প্রকল্প ২০২২ : কারা পাবে,আবেদনের পদ্ধতি,টাকার পরিমান।

প্রতিবছর সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার বিভিন্ন প্রকল্প চালু করে। কেন্দ্র সরকারের চালু করা প্রকল্প গুলির সুবিধা সারাদেশের মানুষ ও রাজ্য সরকারের প্রকল্পগুলির সুবিধা ওই রাজ্যের মানুষরা পেয়ে থাকেন। রাজ্যের পিছিয়ে পড়া সংখ্যালঘু সমাজের ছাত্র-ছাত্রীদের পড়াশোনায় উৎসাহ জোগাতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় চালু করেন ঐক্যশ্রী প্রকল্প।

ঐক্যশ্রী প্রকল্প

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পশ্চিমবঙ্গের সংখ্যালঘু ছাত্র ছাত্রীদের সুবিধার্থে রাজ্য সরকার চালু করেছে ঐক্যশ্রী প্রকল্প (Aikyashree Scheme)। ২০২০ সালে রাজ্যের পিছিয়ে পড়া,অর্থনৈতিক ভাবে দুর্বল সংখ্যালঘু পড়ুয়াদের কথা মাথায় রেখে এই ঐক্যশ্রী প্রকল্প চালু হয়।এই সংখ্যালঘুদের মধ্যে আছে মুসলিম,খ্রীষ্টান,শিখ,জৈন,বৌদ্ধ ও পারসি সম্প্রদায়ের ছাত্র ছাত্রীরা। এই প্রকল্পের আবেদন করা যাবে অনলাইন ও অফলাইননে।

অনলাইনে আবেদন করতে হলে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সংখ্যালঘু উন্নয়ন দপ্তরের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে গিয়ে ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ ২০২২ আবেদন করতে হবে। অফলাইনে আবেদন করা যাবে দুয়ারে সরকার ক্যাম্প থেকেও।

(আরও পড়ুন : Madhyamik Exam 2023 : ১ মাস আগেও হাতে আসেনি টেস্ট পেপার)

ঐক্যশ্রী প্রকল্পের বিবরন

ঐক্যশ্রী প্রকল্প (Aikyashree Scholarship 2022) তিনটি ভাগে বিভক্ত।

  1. Pre-Matric Scholarship : যে সকল সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের ছাত্র-ছাত্রী প্রথম থেকে দশম শ্রেণীতে পাঠরত কেবল তারাই এই স্কলারশিপ এ আবেদনের যোগ্য।
  2. Post-Matric Scholarship : যে সকল ছাত্র-ছাত্রী একাদশ শ্রেণী থেকে পিএইচডি স্তরে পড়াশোনা করছে,তারাই আবেদন যোগ্য।
  3. Merit Cum Means : টেকনিক্যাল ও প্রফেশনাল কোর্স যে সকল পড়ুয়া পড়াশোনা করছে তারাই আবেদন করতে পারবে।

ঐকশ্রী প্রকল্পে আবেদনের যোগ্যতা

  1. আবেদনকারী পড়ুয়াকে পশ্চিমবঙ্গের বাসিন্দা হতে হবে।
  2. আবেদনকারীকে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মধ্যে থেকে হতে হবে।
  3. পড়ুয়াকে সর্বশেষ পরীক্ষায় কমপক্ষে ৫০ শতাংশ নম্বর পেতে হবে।
  4. প্রি ম্যাট্রিক স্কলারশিপ ও পোস্ট ম্যাট্রিক স্কলারশিপের পারিবারিক বার্ষিক আয় দুই লক্ষ টাকার মধ্যে ও মেরিট কাম মিনস স্কলারশিপের ক্ষেত্রে পারিবারিক বার্ষিক আয় আড়াই লক্ষ টাকার মধ্যে হতে হবে।
  5. একটি মোবাইল নম্বর থেকে একবারই আবেদন করা যাবে।
  6. আবেদনকারীর নিজস্ব ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট থাকতে হবে,তবে প্রথম থেকে দশম শ্রেণীর পড়ুয়ারা তাদের অভিভাবকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট দিয়ে আবেদন করতে পারবে।

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপে টাকার পরিমান

  • Pre-Matric Scholarship : বছরে ১১০০ টাকা থেকে ১১,০০০ টাকা পর্যন্ত।
  • Post-Matric Scholarship: বছরে ১০,২০০ থেকে ১৬,৫০০ টাকা পর্যন্ত।

প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

  • আধার কার্ড
  • ব্যাঙ্ক একাউন্ট
  • ইনকাম সার্টিফিকেট
  • শেষ পরীক্ষার মার্কশীট।

ঐকশ্রী প্রকল্পে আবেদন পদ্ধতি

  • গুগলে গিয়ে ঐক্যশ্রী লিখে সার্চ করুন অথবা ওয়েস্ট বেঙ্গল মাইনোরিটিস ডেভলপমেন্ট এন্ড ফাইনান্স কর্পোরেশন (West Bengal Minorities Development and Finance Corporation) ওয়েবসাইটে ভিসিট করুন।
  • ওয়েবসাইটে এসে স্টুডেন্টস এরিয়া (Student’s Area) অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • পরবর্তী ধাপে ফ্রেশ রেজিস্ট্রেশন (Fresh registration (2022-2023)) এ ক্লিক করতে হবে।
  • এর পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি কোন জেলায় অবস্থিত সিলেক্ট করতে হবে।
  • পরের ধাপে স্টুডেন্ট রেজিস্ট্রেশন অপশনে রাজ্য,জেলা,নাম,অভিভাবকের নাম,ঠিকানা,মোবাইল নম্বর,ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ডিটেলস ইত্যাদি তথ্য দিয়ে সঠিক ভাবে ফিল আপ করে ক্যাপচা সলভ করে সাবমিট এন্ড প্রসিড অপশনে ক্লিক করতে হবে।
  • একটি অ্যাপ্লিকেশন আইডি জেনারেট হবে। অ্যাপ্লিকেশন আইডি টি নোট করে রাখতে হবে, যা পরবর্তীতে ঐক্যশ্রী পোর্টালে লগইন করতে কাজে লাগবে।

ঐকশ্রী প্রকল্প ২০২২ আবেদনের শেষ তারিখ

প্রি-ম্যাট্রিক (Pre-Matric) Fresh ও Renewal আবেদনের আবেদনের শেষ তারিখ : ৩১/১২/২০২২

পোস্ট ম্যাট্রিক (Post-Matric),মেরিট কাম মিন্স (Merit Cum Means) ও অন্যান্য স্কলারশিপে আবেদনের শেষ তারিখ : ৩১/০১/২০২৩

Apply Now : CLICK HERE

অফিসিয়াল ওয়েবসাইট : VISIT HERE

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপে কত টাকা পাওয়া যায় ?

বছরে ১১০০/ টাকা থেকে ১৬,৫০০ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যায়।

ঐক্যশ্রী স্কলারশিপ কাদের জন্য ?

এই প্রকল্প কেবলমাত্র রাজ্যের সংখ্যালঘু ছাত্র ছাত্রীদের জন্য। এরা হল মুসলিম ,শিখ,বৌদ্ধ,খ্রিস্টান,পারসি,জৈন।

ঐক্যশ্রী প্রকল্প কবে চালু হয় ?

২০২০ সালে ঐক্যশ্রী প্রকল্প চালু হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Comment