আলাদা আলাদা USB এর দিন শেষ;এবার সব ডিভাইসে ব্যাবহার হবে Type-C পোর্ট।

এক দেশ এক চার্জার নিয়ম লাগু করতে চলেছে ভারতে সরকার। 2024 সালের ডিসেম্বর মাস থেকে সমস্ত ফোন,স্মার্টফোন,ল্যাপটপ,ট্যাবলেটে এবং অন্যান্য তার যুক্ত ডিভাইসের ক্ষেত্রে একই পোর্ট এবং চার্জার বাধ্যতা মূলক করতে চলেছে ভারত সরকার। ইতিমধ্যেই কোম্পানি গুলোকে এই বিষয়ে আগাম নির্দেশনা দিয়েছে সরকার। মূলত প্লাস্টিকের ব্যাবহার কম করার জন্য এবং জনগণের সুবিধার জন্য সমস্ত ডিভাইসের ক্ষেত্রে এই চার্জিং পোর্ট তৈরির সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ভারতের বেশির ভাগ অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ক্ষেত্রে USB Type-C পোর্ট ব্যবহৃত হয়।

মোবাইলফোন,স্মার্টফোন এবং ল্যাপটপের ক্ষেত্রে ব্যুরো অফ ইন্ডিয়ান স্ট্যান্ডার্ডস (BIS) USB Type-C চার্জিং পোর্ট ব্যাবহারে পরামর্শ দিয়েছে। ভারতের কনজুমার অ্যাফেয়ার মিনিস্টার রোহিত কুমার সিং বলেছেন ” সমস্ত কোম্পানি এই সিদ্ধান্তের বিষয়ে রাজি হয়েছে এবং তারা এই সিদ্ধান্ত কে লাগু করবে বলে জানিয়েছে”।

(আরও পড়ুন : Apple,Samsung,Huawei সহ 47 টি ফোনে বন্ধ হচ্ছে whatsapp;দেখুন সেই লিস্ট।)

এদিকে ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট 2022 সালের জুন মাসে একটি বিল পেশ করে তাতে নির্দেশ দিয়েছে যে 2024 সালের মধ্যে সমস্ত অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ডিভাইসের ক্ষেত্রে UCB Type-C চার্জিং পোর্ট ব্যাবহার করতে হবে এবং পরবর্তীতে 2026 সালে এই নিয়মটি ল্যাপটপের ক্ষেত্রেও চালু করা হবে।

নতুন এই নিয়মের ফলে আপনি যখনই কোনো নতুন ডিভাইস কিনবেন যেমন স্মার্টফোন,ল্যাপটপ,ইয়ার বাডস অথবা অন্য পোর্ট যুক্ত ডিভাইস,সব ডিভাইসের ক্ষেত্রে একটিই চার্জার আপনি ব্যাবহার করতে পারবেন।আপনাকে আর আলাদা আলাদা ডিভাইসের আলাদা আলাদা চার্জার কিনতে হবে না ।

সমস্ত নতুন মোবাইল ফোন,ডিজিটাল ক্যামেরা,ট্যাবলেট,হেডফোন,হেডসেট,ভিডিও গেম কনসোল এবং ল্যাপটপ ইত্যাদি চার্জ হবে তারের মাধ্যমে এবং সমস্ত এই ডিভাইসের ক্ষেত্রে একই পোর্ট ব্যাবহার হবে USB Type-C এবং যার চার্জারের ক্ষমতা থাকবে 100 ওয়াট।

শেয়ার করুন

Leave a Comment