হোয়াটসঅ্যাপকে সাবধান করলো ভারত সরকার! কি কারণ ?

গোটা বিশ্বের মধ্যে সব থেকে বেশি হোয়াটসঅ্যাপ (Whatsapp) ব্যবহারকারীর সংখ্যা আছে ভারতবর্ষে। এবার ভারত সরকারের তরফ থেকেই সতর্কবাণী পেল হোয়াটসঅ্যাপ সংস্থা। গত ৩১ ডিসেম্বর জনপ্রিয় এই অ্যাপের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে একটি ভিডিও পোস্ট করা হয় ভারতবর্ষ কে নিয়ে,আর সেই ভিডিওতে ভারতের মানচিত্রে কে ভুল ভাবে দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেন ভারতের কেন্দ্রীয় ইলেকট্রনিক্স ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর।

এই ঘটনা সামনে আসতেই শুরু হয় বিতর্ক,সোশ্যাল মিডিয়াতে ক্ষোভ দেখাতে থাকেন ভারতের জনগণ। প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর তার নিজস্ব টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে টুইট করে সম্মানের সহিত এই ভুল কে ঠিক করতে আবেদন করেন। টুইট করে তিনি লেখেন, ” প্রিয় @WhatsApp – অনুরোধ করছি যে আপ্নারা দয়া করে ভারতের মানচিত্রের ত্রুটিটি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব ঠিক করুন,যে সমস্ত প্ল্যাটফর্ম ভারতে ব্যবসা করে এবং ভারতে ব্যবসা চালিয়ে যেতে চায়,তাদের অবশ্যই সঠিক মানচিত্র ব্যবহার করতে হবে”।

এই টুইট করার দুই ঘণ্টা পরেই হোয়াটসঅ্যাপ তাদের অফিসিয়াল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে সেই বিতর্কিত ভিডিও ডিলিট করে এবং প্রতিমন্ত্রীর টুইট কে রিটুইট করে লেখে – “অনিচ্ছাকৃত ত্রুটি তুলে ধরার জন্য ধন্যবাদ মন্ত্রী;আমরা অবিলম্বে স্ট্রীম সরানো হয়েছে, ক্ষমাপ্রার্থী। ভবিষ্যতে আমরা সচেতন হব”।

(আরও পড়ুন : গুগল ম্যাপে খুঁজে বের করুন লোকেশন কোথায়,জেনে নিন সম্পূর্ণ পদ্ধতি।)

এই ঘটনার অনুরূপ আরও একটি ঘটনা উঠে এসেছে যা ২৮ ডিসেম্বর ২০২২ সালে ঘটেছে। জুম কল অ্যাপের সিও এরিক ইউয়ান প্রায় একই ভুল করেন এবং ভারতবর্ষের ত্রুটিপূর্ণ ম্যাপ নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেন। সাথেই সাথেই প্রতিমন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখরের এই বিষয়টি নিয়েও টুইট করেন,“আপনি নিশ্চিত করতে চাইতে পারেন যে আপনি যে দেশে ব্যবসা করতে চান/সেসব দেশের সঠিক মানচিত্র ব্যবহার করেন”। ইউয়ান উত্তরে লেখেন, “আমি সম্প্রতি একটি টুইট নামিয়েছি যেটি আপনার মধ্যে অনেকের মানচিত্রের সমস্যা ছিল বলে উল্লেখ করেছেন। প্রতিক্রিয়ার জন্য ধন্যবাদ”। এই দুই ঘটনা সোশ্যাল প্লাটফর্মে আসতেই নানা বিতর্ক শুরু হয়। অনেকেই দেখিয়েছেন ক্ষোভ আবার অনেকই মেনে নিয়েছেন ভুল।

শেয়ার করুন

Leave a Comment