ডিএ মামলায় বড় খবর,সোমবার হতে পারে নিস্পত্তি।

অবশেষে হতে পারে সুদীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান। মিলতে পারে লাখ লাখ রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ (Dearness Allowance)।আগামি ১৬ জানুয়ারি (সোমবার) মামলার শুনানির দিন ধার্য করেছে সুপ্রিম কোর্ট। সুপ্রিম কোর্ট কতৃক প্রকাশিত কজ লিস্টে দেখা যাচ্ছে ১৬ জানুয়ারি ৫০ নম্বর কোর্টে সকাল ১০ টা ৩০ মিনিটে ডিএ মামলার শুনানি শুরু হবে। মামলাটি বর্তমানে ৫০ নম্বরে নথিভুক্ত আছে। বিচারপতি দীনেশ মাহেশ্বরী ও বিচারপতি হৃষিকেশ রায়ের বেঞ্চে হবে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ্য ভাতা মামলার শুনানি। রাজ্য সরকারি কর্মচারী সংগঠনগুলি মনে করছে ডিএ মামলা সোমবারই চূড়ান্ত নিস্পত্তি হয়ে যাবে,সুপ্রিম কোর্টের রায় সরকারি কর্মচারীদের পক্ষেই যাবে,বকেয়া মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) দিতে বাধ্য হবে পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতাশীন মমতা ব্যানার্জির তৃণমূল সরকার।

এর আগে ডিএ মামলা ((DA Case Update) যখন কলকাতা হাইকোর্ট থেকে সুপ্রিম কোর্টে উঠেছিল প্রথম দুই দিনের শুনানি (২৮ নভেম্বর ও ৫ ডিসেম্বর) বিচারপতি দীনেশ মাহেশ্বরী ও বিচারপতি হৃষিকেশ রায়ের বেঞ্চেই সম্পন্ন হয়েছিল। কিন্তূ ১৪ ডিসেম্বর বিচারপতি মাহেশ্বরী অনুপস্থিত থাকায় মামলা গিয়ে ওঠে বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত ও বিচারপতি হৃষিকেশ রায়ের বেঞ্চে। কিন্তূ দুই বাঙালি বিচারপতি নিয়ে গঠিত বেঞ্চ নিয়ে কিছু আইনজীবি ও সরকারি কর্মচারী সন্তুষ্ট ছিলেন না বলে খবর,এই নিয়ে কয়েকজন রাজ্যে সরকারি কর্মচারীর সোশ্যাল মিডিয়ায় করা কিছু পোস্ট নজরে আসে বিচারপতি দীপঙ্কর দত্তর। সেই কারণে ১৪ ডিসেম্বর মামলা শুনতেই চাননি বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত। শুনানির শুরুতে প্রথমেই বিচারপতি দীপঙ্কর দত্ত জানিয়ে দেন আমার নাম নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় কথা হচ্ছে তাই আমি এই মামলাটি শুনতে চাইছি না।আমি নিজেকে এই মামলা থেকে সরিয়ে নিচ্ছি। যদিও সরকারি কর্মচারী পক্ষের আইনজীবীরা তার কাছে মামলা থেকে না সরে যাওয়ার আরজি জানান। কিন্তু তিনি কোন কথা শুনতে চাননি। সেই কারণে পিছিয়ে যায় শুনানি,যা সোমবার (১৬ ডিসেম্বর) পুরনো দুই বিচারপতির বেঞ্চে সম্পন্ন হবে।

(আরও পড়ুন : ১২ শতাংশ ডিএ (DA) বাড়ালো সরকার;কিছুটা স্বস্তি সরকারি কর্মচারীদের)

ডিএ নিয়ে সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্য সরকারের সংঘাত বহুদিনের। বর্তমানে রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা মাত্র ৩ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) পান,যেখানে কেন্দ্র সরকারি কর্মচারীরা ৩৮ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা পান,তাছাড়া অন্যান্য রাজ্যের সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ্য ভাতার পরিমাণ পশ্চিমবঙ্গের সরকারি কর্মচারীদের তুলনায় অনেক গুণ বেশি।

সেই কারণে রাজ্য সরকারের কাছে বরংবার অনুরোধ জানিয়ে কোন কাজ না হওয়াই ২০১৬ সালে সরকারের বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করে সরকারি কর্মচারীদের সংগঠন। দীর্ঘ দিন ধরে মামলা চলার পর গত বছর মে মাসে কলকাতা হাইকোর্ট চূড়ান্ত রায়ে অতিসত্বর সরকারি কর্মচারীদের বকেয়া ডিএ মিটিয়ে দেওয়ার আদেশ দেয়,কিন্তু রাজ্য সরকার পরিসংখ্যান দিয়ে জানাই এই মুহূর্তে ডিএ দিতে হলে সরকারের কোষাগার থেকে বাড়তি ৪১ হাজার ৭৭০ কোটি টাকা খরচ হবে,এত বড় খরচ এই মুহূর্তে সরকারের পক্ষে বহন করা সম্ভব নয়। হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সুপ্রিম কোর্টে যায় রাজ্য সরকার,যার শুনানির দিন আগামি ১৬ ডিসেম্বর।

এছাড়াও সাম্প্রতিককালে পড়শী রাজ্য ত্রিপুরা,উড়িষ্যা সরকারি কর্মচারীদের ডিএ বৃদ্ধি করাও সরকারের বিপক্ষে যেতে পারে বলে খবর।

শেয়ার করুন

Leave a Comment